1. sopeelabd@gmail.com : bdnewsworld :
  2. Nazmul241991@gmail.com : Nazmul Hassan : Nazmul Hassan
  3. somoykaltv@gmail.com : বিডিনিউজ ওয়ার্ল্ড : বিডিনিউজ ওয়ার্ল্ড
  4. proshantoKumaDas91@gmail.com : Proshanto Kumar Das : Proshanto Kumar Das
বিদায় ২০২০:মহামারী করোনাকালে নারায়ণগঞ্জে যারা ছিলেন মানুষ জন্য - BD News World
শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ভালো কাজ গ্রহণ ও খারাপ কাজ বর্জন করতে হবে, সোনারগাঁয়ে আ.লীগের ৩ নেতার শোকসভায় ভিপি বাদল নারায়ণগঞ্জে মাস্টার্স ক্রিকেট আজ উদ্বোধন করবেন ডিসি মোস্তাইন বিল্লাহ ধর্ষণে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে অন্তঃসত্বা করার অপরাধে ভুলতা’র টিটু চন্দ্র বিশ্বাসের ছেলে শান্ত গ্রেফতার তাঁতীদের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে বঙ্গবন্ধু তাঁতী লীগ গঠন করেন : এমপি বাবু সোনারগাঁয়ের জামপুরে এমপি খোকার কম্বল বিতরণ খোকন সাহার প্রশ্ন ‘বাকী ১৬ লাখ টাকা কোথায় : এড.খোকন সাহা বঙ্গবন্ধু প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট : নীট কনসার্ণের সহজ জয় শীতলক্ষ্যা নদীতে নিখোঁজ গার্মেন্টস শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার সালথায় প্রা‌ণিজ পু‌ষ্টি নিরাপত্তা ও আত্মকর্মসংস্থা‌নে প্রা‌ণিসম্প‌দের ভূ‌মিকা বিষয়ক সে‌মিনার অনু‌ষ্ঠিত শীত মৌসুমে কম্বল বিতরণের নামে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চলে নিরব চাঁদাবাজি!!

বিদায় ২০২০:মহামারী করোনাকালে নারায়ণগঞ্জে যারা ছিলেন মানুষ জন্য

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি
  • সংবাদটি প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১২৭ বার সংবাদটি পড়া হয়েছে

‘মানুষ মানুষের জন্যে, জীবন জীবনের জন্যে, একটু সহানুভূতি কি, মানুষ পেতে পারে না; ও বন্ধু’- বিখ্যাত সংগীতশিল্পী ভূপেন হাজারিকার সেই কালজয়ী গান ‘মানুষ মানুষের জন্যে’ আজও মানুষের হৃদয়ে নাড়া দেয়। আজও মানুষকে ভাবায়। মানুষের চেতনাকে শাণিত করে; জাগিয়ে তোলে।

যার বাস্তব প্রমান আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে গেলো বিদায় বছর ২০২০। করোনা ভাইরাস সারা পৃথিবীতে আতঙ্কের নাম হলেও নারায়ণগঞ্জে ছিল গানের সেই কথা গুলোর মতোই। মানুষ হয়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতে শিখিয়েছে। চিনিয়েছে আসল মানুষকে।

সেই মানুষ গুলোর তালিকায় সবার আগে যার নাম এসে যায়, লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি, মাকসুদুল আলম খোরশেদ। এরপরই রয়েছে সালমা ওসমান লিপি, রোজিনা আক্তার, ইঞ্জিনিয়ার মাসুম, আয়শা আক্তার দিনা। এছাড়াও আরও অনেকে রয়েছেন, যারা নিজ নিজ অবস্থানে থেকে হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন মানবতার সেবায়।

লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি : সোনারগাঁয়ের রাজনীতির ইতিহাসে মহাজোটের সরকারের আমলে নারায়ণগঞ্জ ৩ আসনে লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি যা করেছেন এবং করছেন তা বিগত দিনের কোন সরকারের আমলে কোন এমপি এমন ভাবে সাহায্য সহযোগীতা ও উন্নয়ণ করেননি বলে বৃহত্বর সোনারগাঁবাসী জানিয়েছেন। জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির অতিরিক্ত মহাসচিব, জাতীয় যুব সংহতির কেন্দ্রীয় সভাপতি লিয়াকত হোসেন খোকা জাতীয় সংসদ সদস্য হওয়ারপর থেকে নারায়ণগঞ্জ ৩ আসন সোনারগাঁয়ের যে সকল উন্নয়ণ মূলক কাজ করেছেন এবং এখনও চলমান রয়েছে তা সোনারগাঁয়ের রাজনীতিতে এক বিরল ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন।সোনারগাঁয়ের সাধারণ মানুষের মূখে জনশ্রুতি রয়েছে দেশ স্বাধীন হওয়ারপর এই সোনারগাঁয়ে বেশ কয়েক জন এমপি ও মন্ত্রী হয়েছিলেন কিন্তু কোন এমপিই লিয়াকত হোসেন খোকার মতো কিছুই করেননি। উপজেলাবাসী বিগতদিনে বরাবরই তাদের হিসবের নেয্য পাওনা থেকে বঞ্চিত হলেও লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি হওয়ারপর থেকে সোনারগাঁবাসীর নেয্য হিসেবের পাওনা কড়ায় গন্ডায় পেয়েছেন এবং পাচ্ছেন। ব্রীজ,কালভার্ট,কাচ াপাকা সড়ক,মসজিদ,মন্দির,স্কুল,কলেজ,ফায়ারষ্টেশন,মুক্তিযোদ্ধা কম্পেলেক্স, এতিমখানা, মাদ্রাসা থেকে শুরু করে বহু উন্নয়ণ মূলক কাজের পাশাপাশি মহামারি করোনা’র আগ্রাসনেরপর এই সংসদ সদস্য প্রতিরাত জেগে মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে নীজ হাতে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রীর বস্তায় করে বিতরণ করেছেন । এখানেই শেষ নয় এমপি খোকার মানবতার কাহিনী। করোনা ভাইরাসে আক্রান্তে নিহতদের লাশ দাফনের জন্য টিম গঠন করে দিয়িছেন। সোনারগায়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত ব্যাক্তিদের লাশ দাফনের জন্য সারাক্ষণ প্রস্তুত থাকতো তার গঠিত ২১ সদস্যদের ঐটিম টি।এছাড়া করোনায় আক্রান্ত রোগীদের সুচিকিৎসা থেকে শুরুকরে ঐপরিবারের সকল সদস্যদের মাসেরপর মাস খাবার সামগ্রী সহ আর্থিক সহায়তা করেছেন। বৃহত্বর সোনারগাঁ বাসীর সেবার জন্য তার এসকল কাজে সহযোগীতা সহ আর্থিক ভাবে যোগান দিয়েছেন এমপি খোকার সহধর্মণী ডালিয়া লিয়াকত সহ জাতীয় পার্টির সোনারগাঁ উপজেলা কমিটির সভাপতি ও সম্ভূপুরা ইউনিয়ণ পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ ও সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট সমাজসেবক, শিক্ষানুরাগী এবং সোনারগাঁ উপজেলা ক্রিড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম ইকবাল।

সালমা ওসমান লিপি : করোনা কালে কখনও খাদ্য নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের স্ত্রী সালমা ওসমান লিপি। আবার কখনওবা করোনা আক্রান্ত পরিবারের জন্য বাড়িয়ে দিয়েছেন সহযোগীতার হাত। সংকট কালিন সময়ে করোনায় আক্রান্তদের ব্যবস্থা করেছেন চিকিৎসার। দিয়েছেন হাসপাতালে বেড ও অত্যাধুনিক অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়েছেন। অর্থ দিয়ে সহযোগীতা করেছেন হাজারও মানুষকে। যখনই খবর পেয়েছেন, কিংবা গণমাধ্যমে-স্যোশাল মিডিয়াতে কোন অসহায় মানুষের সংবাদ প্রকাশ হয়েছে, লিপি ওসমান নিজেই ছুটে গিয়েছেন। কিংবা পাঠিয়েছেন তার প্রতিনিধি। দিয়েছেন সাহস, করেছেন সার্বিক সহযোগিতা ।

রোজিনা আক্তার : শুরুতে কেউ মারা গেলে লাশ গোসল-দাফন তো দূরের কথা পরিবারের সদস্যরাও ছুঁয়ে দেখতো না। চিরচেনা মানুষ করোনায় আক্রান্ত না হয়েও মারা গেলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা মরদেহ পরে থাকতো। অনেক জনপ্রতিনিধি যখন চুপটি করে বাসায় বসে ‘ইয়া নফসি-ইয়া নফসি’ করেছেন। সেই বিভীষিকাময় সময়ে কিছু মানুষ সাহস করে এগিয়ে আসেন। রোজিনা আক্তার তাদের মধ্যে অন্যতম। এ পর্যন্ত ৪৮ জন নারীকে গোসল করিয়েছেন তিনি।

ঝুঁকি জেনেও কেন এমন কাজে এগিয়ে এলেন, এমন প্রশ্নের জবাবে রোজিনা আক্তার জানান, স্বামী মারা গেছে। সন্তানরা বিয়ে করে সংসারী হয়েছে। পরিবারে আমার দায়িত্ব যতখানি আমি মনে করি একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে মানুষের প্রতি আরও বেশি দরদ থাকা দরকার। এই বোধোদয় থেকেই করোনা ভয়কে উপেক্ষা করে মানবসেবায় এগিয়ে এসেছি।

মাকসুদুল আলম খোরশেদ : নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার ওরফে খোরশেদ আলোচনায় আসেন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের লাশ দাফন ও সৎকার করে। করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের মরদেহ দাফনে স্বজনেরা কেউ এগিয়ে না এলেও তিনি ও তাঁর স্বেচ্ছাসেবক দল ১৪৫টি লাশ দাফন ও সৎকার করেছে।

মাকসুদুল বলেন, ‘যখন দেখলাম করোনায় মারা যাওয়া মরদেহগুলোর পাশে কেউ নেই, তখন মনে হলো আমারও তো এই দশা হতে পারে। “মৃতদেহের স্বজন আমরা” স্লোগান নিয়ে লাশ দাফন শুরু করি।’ মাকসুদুল বলেন, প্লাজমা সংগ্রহ, অক্সিজেন ও অ্যাম্বুলেন্স সেবা ছাড়াও করোনা-পরবর্তী পুনর্বাসনের জন্য সেলাই মেশিন, হুইলচেয়ার, সাইকেল বিতরণের কাজও করছেন।

তানভীর আহাম্মেদ টিটু : করোনায় যখন সকলেই প্রকাশ্যে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহায়তা করার কাজে নিয়োজিত ঠিক তখনই ট্রাকে ট্রাকে বোঝাই করে খাবার সামগ্রী সহ বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী নগরীর ভিবিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সহ দায়িত্বরত ব্যক্তিদের কাছে লক্ষ লক্ষ টাকার মাল পাঠিয়েছেন তানভীর আহাম্মেদ টিটু। ঐতিহ্যবাহী নারায়গঞ্জ ক্লাবের একাধিকবারের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ও জেলা ক্রিড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক তানভীর আহাম্মেদ টিটু শুধু সাধারণ মানুষকেই সহায়তা করেননি তিনি নারায়ণগঞ্জের ক্রিড়াঙ্গনের প্রতিভাবান অসহাদ দরিদ্র খেলোয়ারদের পরিবারের পাশে দাড়িয়ে ব্যাপক আলোচিত হয়েছেন।

ইঞ্জিনিয়ার মাসুম : করোনায় যখন সকলের কাজ বন্ধ। তখন সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছে দিনমঞ্জুর মানুষ গুলো। সেই মানুষের পাশে করোনার শুরু থেকেই গিয়ে দাঁড়িয়েছেন নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের একজন চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুম। যে পিরোজপুর ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষের ঘরে ঘরে চাল, ডাল পৌছে দিয়েছেন। পৌঁছে দিয়েছেন শিশু খাদ্য ও নগদ টাকা।

নাজমুল আলম সজল : নারায়ণগঞ্জের রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান নাজমুল আলম সজল বাংলাদেশ হোসিয়ারী এসোসিয়েশনের একাধিক বারের জনপ্রিয় প্রেসিডেন্ট,স্বেচ্ছা সেবকলীগের মহানগর সাবেক সভাপতি ও নাসিক ১৬ নং ওয়ার্ডের জনপ্রিয় নির্বাচিত কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল তার নির্বাচনী এলাকায় ব্যাপক সহযোগীতা করেছেন যা এর আগের সকল কাউন্সিলরা করেননি। এছাড়াও হোসিয়ারী এসোসিয়েশনের সহযোগীতায় র্গামেন্টস ও হোসিয়ারী শ্রমিকদের জন্যও তিনি ছিলেন নিবেদিত প্রাণ।

কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু : সরকারি তহবিল ছাড়া সম্পূর্ণ নিজ উদ্যোগ, অর্থায়ন আর সামাজিক দ্বায়বদ্ধতা থেকে করোনা ইস্যুতে গত এক মাস ধরেই মাঠে কাজ করছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের এই কাউন্সিলর।

সিটি কর্পোরেশনে সংরক্ষিত নারী ও পুরুষ মিলিয়ে ৩৬ কাউন্সিলর থাকলেও এই ক’জনের কর্মকাণ্ডে প্রশংসায় পঞ্চমুখ পুরো নাসিকের ২৭টি ওয়ার্ডের মানুষ।

জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে বাসায় বন্দি নিম্নআয়ের মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারটির প্রতি গুরুত্ব দিয়ে রীতিমতো একটি উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু।

মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী কিংবা বস্ত্র বিতরণের এমন সুশৃঙ্খল দৃশ্য বোধহয় কখনই দেখা যায়নি। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে সেটিও সম্ভব হয়েছে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১২নং ওয়ার্ডে।

মাসব্যাপী জীবাণুনাশক স্প্রে, হেক্সিসল, মাস্ক ও সাবান বিতরণ শেষে নিম্নআয়ের মানুষের জন্য সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই খাদ্যসামগ্রী দিচ্ছেন স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাশেম।

কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু জানান, আমার ১২নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় বাসায় বাসায় ও জনসাধারণের কাছে সাবান, মাস্ক ও হেক্সিসল বিতরণ করা হয়েছে।

বাসায় বসে থাকায় গরিব মানুষরা এখন খাবারের অভাবে দিন কাটাছে। তাই এসব পরিবারের প্রতি সামাজিক দূরত্ব রেখেই (গোল চিহ্ন করে) নিজ কার্যালয় মাঠ থেকে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

হাজী মো: কবির হোসেন : বাংলাদেশ হোসিয়ারী এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি ও আওয়ামীলীগ নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটির কৃষিবিষয়ক সম্পাদক হাজী মো: কবির হোসেন সব সময়ই অসহায় দরিদ্র মানুদের সাহায্য সহযোগীতা বিভিন্নভাবে করে তাকলেও করোনা কালীন সময়ে দুহাত মেলে সহযোগীতা করেছেন। রাতেদিন অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন এরঅকার মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁচে দিয়েছেন । এ বিষয়ে তার ভাষ্যছিলো আমার দেয়ার কোন ক্ষমতা নেই মহান আল্লাহ্ রাব্বুল আল আমিন আমাকে দিয়েছে আর সে থেকেই আমি আমার সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি তবে কোন নেতা বা জনপ্রতিতিনিধি হওয়ার জন্য নয় মহান আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্যই আমি কাজ করছি কারণ মানুষের মাঝেই আল্লাহর বসবাস আর মানুষের খেদমতে মহান আল্লাহ খুশি হন।

আয়শা আক্তার দিনা : করোনা ভাইরাসের কারণে বিপর্যস্ত মানবতার মাঝে একের পর এক মানবতার উদাহারণ সৃষ্টি করে যাচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর আয়শা আক্তার দিনা। করোনা ভাইরাসের কারণে যখন কেউ কারও সহযোগিতায় এগিয়ে আসছেন না ঠিক তখনই আয়শা আক্তার দিনা বিভিন্ন কর্মসূচির পাশাপাশি গর্ভবর্তী মায়েদের নানাভাবে সহযোগিতা করে গিয়েছেন।

তবে, যার কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি প্রত্যাশা করেছিল নগরবাসী। সেই নগর মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী থেকে পুরো করোনার সময়ে প্রত্যাশিত সেবা না পাওয়ার অভিযোগ রয়েছে। যেখানে বিভিন্ন কাউন্সিলরা ছুটে গেছেন মানুষের আপদ-বিপদে, সেখানে মেয়রকে তেমন একটা জনসম্মুখে পাওয়া যায়নি। তবে, সিটি করপোরেশন থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া ত্রাণ তিনি কাউন্সিলরদের মাধ্যমে বিতরণ করেছেন।

সাফায়াত আলম সানী : নারায়ণগঞ্জর ছাত্রলীগের ইতিহাসে এক উজ্জল নক্ষত্রের নাম সাফায়াত আলম সানী । নারায়ণগঞ্জর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়াত আলম সানীর রাজনৈতিক সচ্ছল কর্মকান্ড এতোই ভালো ছিলো যে, নারায়ণগঞ্জের সাংবাদিকরা তাকে ডায়নামিক নেতা হিসেবে আখ্যায়িত করেন। এই নেতা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি থাকা কালে দরিদ্র শিক্ষার্থীদের পাশে থাকতেন সাহায্য সহযোগীতা করতেন। তার আমলে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের গায়ে কোন ধরনের কলংক লাগতে দেননি পরিছন্ন রাজনীতির পাশাপাশি সব সময়ই অসহায় মানুষদের জন্য তিনি সদয় থাকতেন আর করোনা মহামারী কালে অসহায় দরিদ্র শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি নাসিক ১৬ নং ওয়ার্ডের মানুষকে ব্যপকভাবে সহায়তা করেছেন । তার বড় ভাই নাসিক

সংবাদটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ পড়ুন ..
© All rights reserved © 2020 BD NEWS WORLD
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com